Martyred Intellectuals | হীরেন্দ্র মহাজন
914
page-template,page-template-full_width,page-template-full_width-php,page,page-id-914,page-child,parent-pageid-646,ajax_fade,page_not_loaded,,select-theme-ver-4.6,wpb-js-composer js-comp-ver-5.5.5,vc_responsive

হীরেন্দ্র মহাজন

জন্ম – ১৮৮৬

“বিপন্ন মানবতা, বিপন্ন দেশের পাশে দাঁড়ানো একজন”

শহীদ হীরেন্দ্র মহাজন চৌধুরী ছিলেন পিরোজপুর মুক্তিবাহিনীর সংগঠক ও প্রশিক্ষক। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে মাত্র বাইশ বছর বয়সে ভারত-ব্রিটিশ বাহিনীতে যোগদান করেন এবং তৎকালীন সামরিক বাহিনী কর্তৃক বহুবার পুরস্কৃত হন। ৪৭-এ ভারত বিভাগের পর পুলিশ বাহিনীতে দায়িত্বপ্রাপ্ত হয়ে কুষ্টিয়া পুলিশ স্টেশন-এ যোগ দেন। ৭১’এ তিনি পিরোজপুর দুর্নীতি দমন ব্যুরোর দায়িত্বে ছিলেন। তিনি প্রায়ই বলতেন, “Try to do something for distressed people”। তিনি তাঁর কর্মজীবনে “distressed people”-এর পাশে দাঁড়াতেন।

২৩শে মে ১৯৭১, পাক সেনারা পরগনার গ্রামের বাড়ি থেকে তাঁকে ধরে নিয়ে গিয়ে নদীর ধারে গুলি করে। হাতে গুলি লাগলে তিনি নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়েন এবং সাঁতরে পার্শ্ববর্তী গ্রামের এক জলাশয়ে আশ্রয় নেন। কিন্তু শান্তি বাহিনীর দোসরদের সহায়তায় পাকবাহিনীর সদস্যারা তাঁকে সেখানেও আক্রমণ করে এবং হত্যা করে। শত্রুর আক্রমণের মাঝেও চিৎকার করে বলেছিলেন, “দেশ স্বাধীন হবেই!” আজ তিনি নেই কিন্তু তাঁর স্বপ্ন সার্থক হয়েছে।