882
page-template,page-template-full_width,page-template-full_width-php,page,page-id-882,page-child,parent-pageid-646,stockholm-core-1.0.9,select-theme-ver-5.1.8,ajax_fade,page_not_loaded,wpb-js-composer js-comp-ver-6.0.3,vc_responsive

ডা. মোঃ ফজ্‌লে রাব্বী

২২ সেপ্টেম্বর, ১৯৩২

“সেবাকেই সেরা পেশা করে যিনি কাঁপিয়েছিলেন সারা পৃথিবী”

পাবনা জেলার ছাতিয়ানী গ্রামে জন্মগ্রহণ করা ডা. মোঃ ফজ্‌লে রাব্বী পাবনা জিলা স্কুল থেকে ১৯৪৮ সালে মেট্রিক এবং ঢাকা কলেজ থেকে ১৯৫০ সালে আই.এস.সি পাশ করে ঢাকা মেডিকেল কলেজে ভর্তি হন। ১৯৫৫  এমবিবিএস পাশ করে ১৯৫৬ সাল পর্যন্ত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ইন্টার্ন চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

ডা. মোঃ ফজ্‌লে রাব্বী এমবিবিএস চূড়ান্ত পেশাগত পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘স্বর্ণপদক’ লাভ করেন। মাত্র ত্রিশ বছর বয়সে লন্ডন রয়েল কলেজ থেকে এমআরসিপি ডিগ্রি অর্জন করেন ডা. মোঃ ফজ্‌লে রাব্বী, ইন্টারনাল মেডিসিন এবং কার্ডিওলজি- এই দুই বিষয়ে দুটি। প্রফেসর রাব্বী একজন চিকিৎসাবিজ্ঞানী ছিলেন। উপমহাদেশের অসংখ্য মানুষ তাঁর কাছে দুরারোগ্য রোগের চিকিৎসার জন্য আসতেন। মেডিসিনের উপর তাঁর গবেষণাপত্র ব্রিটিশ মেডিকেল জার্নাল এবং ল্যান্সেট-এ প্রকাশিত হয়। বিশিষ্ট হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ শহীদ ডা. মোঃ ফজ্লে রাব্বী ঢাকা মেডিকেল কলেজে অধ্যয়নকালেই ছাত্র রাজনীতিতে জড়িত ছিলেন এবং ৫২-র ভাষা আন্দোলনে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেছিলেন। যুদ্ধ চলাকালে তিনি যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের সেবা করতেন গোপনে গোপনে।

১৯৭১ সনের ১৫ই ডিসেম্বর বিকেলে পাকবাহিনীর সৈন্যসহ রাজাকার-আলবদরদের কয়েকটি দল ডা. মোঃ ফজ্‌লে রাব্বীকে তাঁর সিদ্ধেশ্বরী বাসভবন থেকে তুলে নিয়ে যায় এবং রায়েরবাজার বধ্যভূমিতে নির্মমভাবে হত্যা করে। ১৮ই ডিসেম্বর দিনের বেলায় শহীদ ডা. মোঃ ফজ্‌লে রাব্বীর ক্ষত-বিক্ষত মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ দেশের পতাকা ভুলবে না সে নাম- শহীদ ডা. মোঃ ফজ্‌লে রাব্বী।