Martyred Intellectuals | জ্যোতির্ময় গুহঠাকুরতা
769
page-template,page-template-full_width,page-template-full_width-php,page,page-id-769,page-child,parent-pageid-646,ajax_fade,page_not_loaded,,select-theme-ver-4.6,wpb-js-composer js-comp-ver-5.5.5,vc_responsive
জ্যোতির্ময় গুহঠাকুরতা

জ্যোতির্ময় গুহঠাকুরতা

জন্ম – ১০ জুলাই, ১৯২০

“অক্ষরে, শব্দে, কথায় মুক্তিই ছিল যার মন্ত্র”

শিক্ষিত মধ্যবিত্ত সংস্কৃতিবান পরিবারের সন্তান জ্যোতির্ময়ের বিদ্যাশিক্ষায় হাতেখড়ি ঘটে তাঁর জন্মস্থান ময়মনসিংহে। প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি সাহিত্যে ভর্তি হন এবং ১৯৪২ সালে প্রথম শ্রেণীতে প্রথম স্থান অধিকার করে বি.এ. অনার্স ডিগ্রি অর্জন করেন।

১৯৪২ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগ থেকে কৃতিত্বের সঙ্গে শিক্ষা সম্পন্ন করার পর জ্যোতির্ময় গুহঠাকুরতা ১৯৪৯ সালে সেখানে শিক্ষক হিসেবে যোগ দেন। পঞ্চাশের দশকের গোড়ায় তাঁর যুগ্ম-সম্পাদনায় প্রকাশিত হয় উদার অসাম্প্রদায়িক বাঙালি চেতনাসম্পন্ন ‘নিউ ভ্যালুজ’ সাময়িকী। তাঁর কথায় এসেছে প্রগতি, মানবিকতা ও মুক্তির কথা। তিনি লন্ডনের কিংস কলেজ থেকে পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা শুরু করেন

পাকসেনারা ড. জ্যোতির্ময় গুহঠাকুরতাকে ঘর থেকে তুলে নিয়ে পেছনের আঙিনায় গুলি করে ফেলে যায়। সেদিন ছিল ২৫শে মার্চ। কারফিউয়ের মধ্যে মৃত্যুপথযাত্রী অধ্যাপককে ধরাধরি করে কোনোক্রমে ঘরে নিয়ে আসেন তাঁর স্ত্রী ও কিশোরী কন্যা। কিন্তু তাঁর ক্ষত উপশমের জন্য কিছুই করা যাচ্ছিল না। পরে কয়েকজন ছাত্র জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তাঁকে মেডিকেল কলেজে নিয়ে গেলেও প্রাণরক্ষা করা সম্ভব হয় নি। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের ফলে ৩০ মার্চ তিনি মৃত্যুবরণ করেন।