869
page-template,page-template-full_width,page-template-full_width-php,page,page-id-869,page-child,parent-pageid-646,stockholm-core-1.0.9,select-theme-ver-5.1.7,ajax_fade,page_not_loaded,wpb-js-composer js-comp-ver-6.0.3,vc_responsive

অধ্যাপক আবুল হাশেম মিয়া

জন্ম – ১৯৪০

“স্বাধীনতা সংগ্রামের অকুতোভয় সৈনিক”

আবুল হাশেম মিয়া শরীয়তপুর জেলার পাঁচগাও গ্রামে ১৯৪০ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবার নাম রহম আলী শেখ। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে সম্মানসহ এমএ পাশ করেন। পরে আইনে এলএলবি ডিগ্রি লাভ করেন। ছাত্রাবস্থায় তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ মুসলিম হলের ছাত্র সংসদের সদস্য ছিলেন।

যুদ্ধের আগে আবুল হাশেম মাইজদী সরকারি মহাবিদ্যালয়-এর রাষ্ট্রবিজ্ঞানের প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন। তিনি অত্যন্ত মিষ্টভাষী, পরোপকারী মানুষ ছিলেন। ক্ষুধার্ত মানুষকে খাওয়ানো, গরীব ছাত্রের ফর্ম ফিলাপের টাকা দেওয়া… সব কাজেই তিনি এগিয়ে আসতেন সবার আগে। দেশকে তিনি ভালোবাসতেন মায়ের মতো। মুক্তিযুদ্ধে তাঁর ছিল সক্রিয় অংশগ্রহণ। তিনি যুদ্ধের পরিকল্পনা করে সেই তথ্য মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে পৌঁছে দিতেন।

দেশ তখন বিজয়ের একদম দ্বারপ্রান্তে। সেই সময় আবুল হাশেম ডিসেম্বরের এক সকালে একটি মিছিলে অংশ নিতে যান। সেই যাওয়াই তাঁর শেষ যাওয়া, আর ফেরেননি তিনি। মাইজদী কোর্টে ৭ ডিসেম্বর পাকিস্তানি আর্মির চোরা গুলিতে শহীদ হন দেশের এই অকুতোভয় সন্তান।